ইএটিএল-প্রথম আলো অ্যাপস প্রতিযোগিতা ২০১৫ তে প্রথম রিক্সা রেসিং গেম


 লাখ

ঢাকা শহরের ব্যস্ততম রাস্তায় রিকশার এমন রেসিং নিয়ে গেইম তৈরি করে সেরা দশের প্রথম স্থান লাভ করে ১০ টাকা পুরস্কার জিতে নিয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল আস-গার্ডিয়ান। এই দলের সদস্যরা হলেন ফেরদৌস বিন আলি, রিয়াদ জোনায়েদ, অনিরুদ্ধ প্রিথুল ও পিচাই মণ্ডল।

রোববার ‘ইএটিএল-প্রথম আলো অ্যাপস প্রতিযোগিতা ২০১৫’ এর গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠানে সেরা দশ দলের নাম ঘোষণা করে তাদের পুরস্কৃত করা হয়েছে।

রাজধানীর ফার্মগেটে অবস্থিত বাংলাদেশ কৃষিবিদ ইনিস্টিটিশন মিলনায়তনে অ্যাপস প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করেছে এথিকস অ্যাডভান্সড টেকনোলজি লিমিটেড (ইএটিএল)।

প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল টিম ভাইকিংস রি-ইনকারনেটেড ‘সেফটি এনসিওর্ড’ অ্যাপ ডেভেলপ করে হয়েছে দ্বিতীয় সেরা। এই দলের সদস্যারা হলেন মো. আল-জিহাদ, সাদ আহমেদ আকাশ। আর পুরস্কার হিসেবে তারা পেয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা।

বিপদ বা প্রয়োজনের সময় যাতে দ্রুত সঠিক জায়গায় ফোনকল বা খুদেবার্তা চলে যায় তা নিশ্চিত করা এই অ্যাপের কাজ।

ট্রাভেল ও ট্যুরিজমভিত্তিক অ্যাপ ‘এক্সপ্লোরিং বাংলাদেশ’ তৈরি করে প্রতিযোগিতাটিতে তৃতীয় স্থানে আছে ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির শিক্ষার্থী মো. মশি মাসনাদ অর্ক, নাফিজ হাসান খান, সিহাবুজ্জামান এবং সিহাব হাসান। অ্যাপটির সাহায্যে হোটেল খোঁজা, ট্রাভেল প্ল্যান করাসহ চিত্রভিত্তিক নানা জায়গার বর্ণনা দেওয়া আছে। দলটি পেয়েছে পুরস্কার হিসেবে তিন লাখ টাকা।

এছাড়াও প্রতিযোগিতায় ‘ইনফার্নাল ক্রুসেড’ দ্বিমাত্রিক আর্কেড গেইম তৈরি করে চতুর্থ স্থানে আছে এন্টিভাইরাল স্টুডিওর মাকসুদুল হক, সাদিকুর রহমান, সাদিকুর রহমান, রায় দেবাশিস এবং শিহাব আলভী।

প্রাথমিক শিক্ষা নিয়ে অ্যাপ তৈরি করে পঞ্চম হয়েছে ইউল্যাবের শিক্ষার্থীরা। ষষ্ঠ স্থানে আছে খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তারা তৈরি করেছেন ‘বার্স্ট ইউর এনিমি’ নামের একটি গেইম।

‘ক্যাচ দ্যা হিন্ট’ শিশুদের গেইম যেখানে শিশুদের বাংলা, ইংলিশ, গণিতের ১৮০টি ধাপ রয়েছে। ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের দল দূরবীনের সদস্য ওয়াহেদুজ্জামান, আল নোমান এবং অমল গেইমটি তৈরি করে হয়েছে ইএটিএল-প্রথম আলো অ্যাপস প্রতিযোগিতার সেরা সাত।

‘মানি ক্যালকুলেটর’ টিম ব্রেকের একটি কাজ। যেখানে দৈনিক বাজেট গণনা, সঞ্চয় গণনা, লোন এবং ভ্যাট গণনা করা সম্ভব হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এটি উন্নয়ন করেছে। হয়েছে সেরা দশের সেরা আট।

‘ফিংগো’ গেইম আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ (এআইইউবি) টিম নাটা এন্টারটেইনমেন্ট গেইমটি তৈরি করে হয়েছে নবম।

‘চাইল্ড ভ্যাকসিন’ অ্যাপ উন্নয়ন করে দশম স্থান রয়েছে এআইইউবির আরেক দল স্মাইল।

পুরস্কার বিতরণী এবং সমাপনী প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, গ্রামীণ ফোনের চিফ কমার্শিয়াল অফিসার ইয়াসির আজমান, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান ও ইএটিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ মুবিন খান।

অনুষ্ঠানে বক্তারা দেশের উন্নয়নের জন্য কাজে লাগে এমন সব অ্যাপ তৈরির দিকে নির্মাতাদের নজর দিতে বলেছেন। এছাড়াও জনপ্রিয় অ্যাপ তৈরি করে বিশ্ববাজারে নিজেদের অবস্থান জানান দেওয়ার কথাও বলেন তারা।

এর আগে নয় মাসব্যাপী প্রতিযোগিতাটিতে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। তরুণদের মোবাইল অ্যাপস তৈরির বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করা এবং মোবাইল অ্যাপসের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সারাদেশের ৫০টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যাক্টিভেশনের মাধ্যমে ৭৫০এর অধিক ধারণাপত্র সংগ্রহ করা হয়।

এই প্রতিযোগিতাটির টাইটেল পার্টনার হিসাবে আছে প্রথম আলো এবং এক্সক্লুসিভ টেলিকম পার্টনার গ্রামীণফোন।